নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর পত্রিকা

 

প্রথমবারের মতো টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, বেগমগঞ্জ, নোয়াখালীতে অনুষ্ঠিত হচ্ছেহাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস ২০২১ সামাজিক উদ্যোগ ভিত্তিক ধারণাগুলো উপস্থাপনের সুযোগ দেয়ার মাধ্যমে টিইসিএন এর শিক্ষার্থীদের মধ্যে শেখার, আইডিয়া আদান প্রদানের এবং গঠনমূলক প্রতিযোগিতায় অংশ নেবার সুযোগ করে দিয়েছে হাল্ট প্রাইজ

 

 

হাল্ট প্রাইজ মূলত একটি গ্লোবাল কম্পিটিশন ২০১০ সালে এমবিএর ছাত্র আহমেদ আস্কার,তামার স্যাম,ক্যারোলিন ব্যাচম্যান এবং জোসে এস্কবার এর

উদ্যোগে ‘ Hult Global Case Challenge ‘ এর যাত্রা শুরু হয়,যা পরে ‘ Hult Prize ‘ নামে পরিচিতি পায়

হাল্ট প্রাইজ মূলত বৈশ্বিক সমস্যাগুলো সমাধানের উপর জোর দেয় যেখানে প্রাক্তন আমেরিকার প্রেসিডেন্টবিল ক্লিন্টনস্বয়ং প্রতিবছর আলাদা আলাদা টপিক বাছাই করে দেন ২০১০ সালের চ্যালেঞ্জ “Early Childhood Education” দিয়ে এই যাত্রা আরম্ভ হয় এবং ২০২১ সালে এর টপিক হচ্ছে ‘ Food for good’

হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস ২০২১, এট টিইসিএন এর যাত্রা শুরু হয় অর্গানাইজিং কমিটির আবেদন এবং নিয়োগের  প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সুদক্ষ অর্গানাইজিং কমিটির হাত ধরে টিইসিএন অন ক্যাম্পাস টিম রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হয় .১১.২০ তারিখ থেকে এবং শেষ হয় ১৩.১১.২০ তারিখ  ১১দিনের এই  রেজিষ্ট্রেশন প্রক্রিয়ার পর টিইসিএন ক্যাম্পাস থেকে মোট ২৬ টি টিম রেজিস্ট্রেশন সম্পূর্ণ করে এই ২৬ টি টিম মিলে অনুষ্ঠিত হবে অন ক্যাম্পাস রাউন্ড সম্ভাব্য .১২.২০ তারিখে অন ক্যাম্পাস রাউন্ডের সেমিফাইনাল এবং ১০.১২.২০ তারিখে অন ক্যাম্পাস রাউন্ডের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে

 

 

এবারের হাল্ট ফুড চ্যালেঞ্জ:

২০২১ সালে HULT Prize এর প্রত্যাশা হলো একটি পরিপূর্ণ ফুড সাইকেল তৈরি করা পুরো বিশ্বের যুব সমাজের সাহায্যে, যে সাইকেল পুষ্টি ঘাটতি পূরণের পাশাপাশি তৈরি করবে নতুন কর্মসংস্হান, আনবে অর্থনৈতিক স্হিতিশীলতা এবং সাপ্লাই চেইনে পরিবর্তন যা ২০৩০ সালের মধ্যে কোটি মানুষের জীবন উন্নত করবেতাই এবারের চ্যালেঞ্জের নাম হলো “Food for Good”.

 

 

নোবেল বিজয়ী . মুহম্মদ ইউনূস কতৃকহাল্ট প্রাইজ ‘-কে  ‘শিক্ষার্থীদের নোবেলহিসেবে খ্যাতি প্রাপ্ত হাল্ট প্রাইজ কম্পিটিশনে পার্টিসিপেট করার ফলে টিইসিএনের শিক্ষার্থীরা অনেক সুবর্ণ সুযোগ লাভ করবে:

✴️ হাল্ট প্রাইজে পার্টিসিপেট করার মাধ্যমে প্রতিটি টিমের সকল সদস্য একটি করে পার্টিসিপ্যান্ট সার্টিফিকেট পাবে

✴️ হাল্টের গ্লোবাল ফাইনালে বিজয়ী দলের জন্য থাকছে মিলিয়ন ডলার প্রাইজমানি

✴️ অনক্যাম্পাস রাউন্ডে বিজয়ী দলের জন্যও একটি নির্দিষ্ট প্রাইজমানির ব্যবস্হা থাকে

✴️ তাছাড়া প্রতিটি ক্যাম্পাসে যারা অর্গানাইজিং কমিটিতে থাকবেন,তাদের সকলকে  সাবেক ইউএস প্রেসিডেন্টবিল ক্লিন্টনেরস্বাক্ষরিত সার্টিফিকেট দেয়া হবে, যা প্রফেশনাল লাইফে বড় অ্যাডভান্টেজ হিসেবে কাজ করবে

✴️ রিজিওনাল পর্যায়ে উর্ত্তীর্ণ হওয়া দল অনেক বেশী পরিচিতি পায় যার মাধ্যমে তাদের নেটওয়ার্কিং দক্ষতা অনেক ভালো হয়

✴️ পাশাপাশি অংশগ্রহনকারী টিমের সদস্যদের পাবলিক স্পিকিং, প্রেজেন্টেশন দক্ষতা, টিমওয়ার্কিং স্কিল বাড়ে

✴️ হাল্টের ইন্টারনেশনাল পর্যায়ে আছে ১৬ সপ্তাহের এক্সেলেটর প্রোগ্রাম যার মাধ্যমে পার্টিসিপ্যান্টরা নিজেদের স্টার্টআপকে ডেভেলপ করার সুযোগ পায়

✴️ তাছাড়া দেশ বিদেশে হাল্টের যেকোনো বিজনেস স্কুলে ভ্রমণের সুযোগ তো থাকছেই

 

 

 

 

আমাদের স্পন্সর হিসেবে আছে:

Bohubrihiহাল্ট প্রাইজ TECN 2021 এর লার্নিং পার্টনার

Tech কারিগর School  – হাল্ট প্রাইজ TECN 2021 এর এডুকেশন পার্টনার

Textile Focusহাল্ট প্রাইজ TECN 2021 এর ম্যাগাজিন মিডিয়া পার্টনার

Caveহাল্ট প্রাইজ TECN 2021 এর সামাজিক মিডিয়া আউটলেট পার্টনার

Crimsonহাল্ট প্রাইজ TECN 2021 এর টিশার্ট পার্টনার

Radio TECNহাল্ট প্রাইজ TECN 2021 এর রেডিও পার্টনার

Casper Foundationহাল্ট প্রাইজ TECN 2021 এর ইয়ুথ এনগেজমেন্ট পার্টনার এবং মিডিয়া ইন্ডাস্ট্রির সর্বাধিক মর্যাদাপূর্ণ অংশীদার হলেন আমাদের নিউজ পার্টনার হিসেবেসুখবর পত্রিকা

 

টিইসিএন হাল্ট প্রাইজ ভবিষ্যতে সম্ভাবনা নতুন দ্বার উন্মোচকঃ

 

হাল্ট প্রাইজ এর মতো একটি গ্লোবাল প্লাটফর্মে এটেন্ড করে অভিজ্ঞতা  অর্জনের দ্বারা অনেকের জীবনে এসেছে সফলতা হাল্ট প্রাইজ প্রত্যেকের অনন্য বিজনেস স্টার্ট আপ আইডিয়া গুলো একটি গ্লোবাল প্লাটফর্মে উপস্থাপনের সুযোগ করে দেয় যার ফলে আইডিয়াটা প্রতিষ্ঠিত হওয়ার বড় একটা সম্ভাবনা থাকেহাল্ট প্রাইজে অংশগ্রহণের মাধ্যমে তরুণ উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার সুযোগ পাওয়া যায়প্রতিযোগিতায় সেরা বিজনেস আইডিয়া গুলো বাস্তবায়নের জন্য হাল্ট প্রাইজ কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চ সুবিধা দিয়ে থাকে অনেকের ভালো আইডিয়া থাকা সত্ত্বেও পর্যাপ্ত  ফান্ডিং না থাকায় পিছিয়ে আসতে হয়কিন্তু হাল্টের মত গ্লোবাল প্লাটফর্মে নিজের আইডিয়া উপস্থাপনের ফলে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এবং স্পন্সরদের নজড়ে আসা যায় খুব সহজেই ফলে ফান্ডিং পেতে বেগ পেতে হয় না তাছাড়া আরো থাকছে হাল্ট প্রাইজে জব করার সুযোগ এভাবে হাল্ট প্রাইজ প্রতিবছর  বিভিন্ন বৈশ্বিক সমস্যা সমাধানের পাশাপাশি গড়ে দিচ্ছে তরুণদের জন্য নতুন কর্মসংস্থান এবং নিশ্চিত ভবিষ্যৎ

 

ওয়াল্ট ডিজনি বলেছিলেন,”আমাদের সব স্বপ্নগুলো পূরন হতে পারে, যদি আমরা সেই স্বপ্ন পূরন করার জন্য যথেষ্ট আত্মবিশ্বাস অর্জন করতে পারি

 

 

 

হাল্ট প্রাইজ অন টিইসিএন আপনার সেই স্বপ্নগুলো বাস্তবায়ন করতে উৎসাহী  এটি কোনও প্রতিযোগিতা নয়, এটি একটি সুযোগ নিজেকে ভবিষ্যতে উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য এবং হাল্ট আপনার এগিয়ে যাবার পথকে আরো  মসৃণ করে তোলে

 

শাহরিয়ার করিম সিফাত

ক্যাম্পাস ডিরেক্টর, হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস ২০২১

টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারিং কলেজ, নোয়াখালী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *