ইঞ্জিনিয়ারিং স্টুডেন্টদের কাছে ‘চোথা’ শব্দটা খুবই সাধারণ। কিছু কিংবদন্তী সিনিয়ারের ক্লাস নোট, কোর্স টিচারের প্রদত্ত স্টাডি মেটারিয়াল বা কোন দূর্ল বইয়ের কয়েকটা পেইজের ফটোকপি, যার প্রাপ্তি, পরীক্ষার আগের রাতেও ‘আপনার তীরে এসে তরী ডুবা’ থেকে রক্ষা করবে, তাকেই ‘চোথা’ বলে। পরীক্ষার আগে এই চোথা সংগ্রহ মোটেও সহজ না। আবার সংরক্ষনের অভাবে সময়কালে অনেক ভালো চোথাই হারিয়ে যাচ্ছে। আর এই সমস্যার সমাধান নিয়ে হাজির রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিস্ববিদ্যালয়ের “তড়িৎ ও ইলেক্ট্রনিক প্রকৌশল” বিভাগের শিক্ষার্থী, স্বপ্নীলের ‘Cotha’ অ্যাপ।

কি কি থাকছে এই অ্যাপেঃ

 

  • ইঞ্জিনিয়ারিং স্টুডেন্টদের জন্য এটি এমন একটি প্লাটফর্ম যেখানে যে কেউ তার স্টাডি মেটারিয়াল কিংবা বই পত্রের ফাইল আপলোড করতে পারবে এবং লাইব্রেরি থেকে যে কোন সময় ডাউনলোড করতে পারবে।

  • সবকিছু রুয়েটের সিলেবাসের ডিপার্টমেন্ট, সেমিস্টার এবং কোর্স আকারে সাজানো আছেযাতে খুব সহজেই ফাইল খুজে পাওয়া যায়। প্রতিটা ফাইলের জন্য থাকছে রেটিং এবং রিপোর্টিং অপশন, ফলে ফাইল রেটিং ফাইল ডাউনলোডে সাহায্য করবে।

  • আর যে কেউ এতে আপলোড করতে পারবেফলে যে যার নিজের ডিপার্টমেন্ট এর ফাইল গুলো আপলোড করে দিলে তা সে নিজেও ইউজ করতে পারবে সাথে সাথে তা বাকিদের জন্যও থেকে যাবে। তাই আশা করব যে যার ডিপার্টমেন্ট এর ফাইল নিজের আপলোড করে দিবে আমাদের লাইব্রেরিটা আরো উন্নত করবেন।
     
  • এছাড়াও এর মধ্যে নিজের ফাইল মেনেজার আছে যেখানে ডাউনলোডেড ফাইলগুলো ডিপার্টপেন্টসেমিস্টার এবং কোর্সে অনুযায়ী সাজানো থাকবেআর এই ফাইল মেনেজার নরমাল যে কোন ফাইল মেনেজারের মতই সব কাজ করবে।

  • এর মধ্যে আছে নিজস্ব পিডিএফ রিডারইমেজ ভিওয়ার এবং মিডিয়া প্লেয়ার। সাথে সাথে প্রতিটি ফাইল অনলাইনে পড়ারো সুযোগ থাকছে। একটা স্টুডেন্ট এর পড়াশোনার জন্য যা যা দরকার সবই এর মধ্যে দেয়ার চেস্টা করবে

অ্যাপটি সম্পর্কে স্বপ্নীল বলেন, 

যদি সব রুয়েটিয়ান এটা ইউজ করে তবে আমার পরিশ্রম সার্থক, আমি একদমই নতুন একজন ডেভেলপার তাই হয়ত নানা রকম ভুলত্রুটি থাকতে পারে, কারো ডিভাইসে কোন রকম সমস্যা হলে আমার সাথে যোগাযোগ করলে আমি আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করব৷

অ্যাপটিতে ভার্সিটি নাম, ডিপার্টমেন্ট নাম দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। আপনি চাইলে চোথা আপলোড ও করতে পারবেন। রেটিং দেয়া যাবে, যাতে রেটিং দেখে চোথা পড়তে পারেন। বাকী তথ্য কমেন্ট থেকে জেনে নিতে পারেন।

মূলত, এটা রুয়েটের কারিকুলাম কে সামনে রেখে বানানো হয়েছে, তবে পরবর্তীতে রিসোর্সে সমৃদ্ধ হলে সকল প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ থেকে কম-বেশী উপকৃত হতে পারবে।

রুয়েটিয়ানদের জন্য হাইলি রিকমেন্ডেড এ এপটি পাওয়া যাচ্ছে গুগল প্লে স্টোরে।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে নিচের Download বাটনে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *