|| নিজস্ব প্রতিবেদক, সুখবর পত্রিকা ||

 

হাবিপ্রবিতে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হাল্ট প্রাইজ অনক্যাম্পাস ইভেন্টটির ফাইনাল রাউন্ড গত ১৩ ডিসেম্বর সম্পন্ন হয়েছে। হাল্ট প্রাইজ অনক্যাম্পাস ইভেন্টটিতে ৪৭ টি টিম প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করেছিল। প্রতিযোগিতাটি দুইটি রাউন্ডে বিভক্ত ছিল। প্রথম রাউন্ডে জমাদানকারী আইডিয়াগুলো থেকে অভিজ্ঞ বিচারকমন্ডলী সেরা ৮ টি টিমের আইডিয়া বেছে নেয়। উক্ত ৮ টিম পরবর্তীতে ফাইনাল রাউন্ডে অংশগ্রহণ করে। ফাইনাল রাউন্ডে অনলাইনে  বিচারকদের উপস্থিতিতে ৮ টি টিম তাদের আইডিয়া স্লাইড উপস্থাপন করেন। বিচারকগণ তারমধ্যে থেকে সেরা টিমটিকে নির্বাচন করেন। অনক্যাম্পাস ইভেন্টটিতে প্রথম ও ফাইনাল রাউন্ডে বিচারক হিসেবে ছিলেন মো. শেখ ফরিদ মিলন (প্রজেক্ট ম্যানেজার,বিসটা সলুশন ইনকর্পোরেশন), মুজাহিদুল ইসলাম শামীম (প্রভাষক, ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগ,হাবিপ্রবি), মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল নাসিম (ফাউন্ডার এবং সিইও,পাইনিওর আলফা লিমিটেড) এবং মো. আসাদুজ্জামান টিপু (প্রভাষক, স্টেট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ)।

 

হাবিপ্রবি অনক্যাম্পাস ইভেন্টটিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে “টিম প্রোটিন বুস্টার”। চ্যাম্পিয়ন দলের সদস্যরা হলেন মো. রাশিদুর রহমান,মারজুকা মেহজাবিন, মো. রাকিবুল হাসান এবং মো. আবদুল্লাহ আল মেরাজ। প্রতিযোগিতায় ১ম রানারআর্প হয়েছে “টিম বায়ো কাল্টিভেটর” ও ২য় রানারআর্প হয়েছে “টিম ডিল মেকারস”।

 

গত নভেম্বর মাসে হাবিপ্রবিতে হাল্ট প্রাইজ অনক্যাম্পাস ইভেন্টটি অনুষ্ঠিত করার উদ্দেশ্যে ৩৫ সদস্যের অর্গানাইজিং কমিটি প্রকাশ করা হয়। অর্গানাইজিং কমিটির এডভাইজার হিসেবে ছিলেন রনি কুমার দত্ত (সহকারী অধ্যাপক,ফিন্যান্স এন্ড ব্যাকিং বিভাগ)। হাল্ট প্রাইজ হাবিপ্রবি এর ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে ছিলেন হাবিপ্রবি ইইই বিভাগের ১৮ ব্যাচের ছাত্র উষ্ণ দাশ এবং অর্গানাইজিং কমিটির প্রধান হিসেবে ছিলেন ইইই বিভাগের ১৭ ব্যাচের ছাত্র রাজীব শুভ্র দত্ত।

 

প্রোগামটি সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারায় উচ্ছ্বসিত রাজীব শুভ্র দত্ত বলেন, হাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে হাল্টপ্রাইজ অনক্যাম্পাস ইভেন্টটি আগামীতেও অনুষ্ঠিত হবে এবং তিনি আশা প্রকাশ করেন, এবছরের ন্যায় আগামী বছরগুলোতে যেন হাল্ট প্রাইজ অনক্যাম্পাস ইভেন্টটিতে হাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *